অমিত শাহের কথায়, হিন্দি এবং ভারতের অন্যান্য সব ভাষাকেই অগ্রাধিকার দিতে হবে।
হিন্দির মাধ্য দেশকে ‘ঐক্যবদ্ধ’ করতে প্রথম থেকেই বদ্ধপরিকর ছিল বিজেপি। তবে বিভিন্ন সময়ে দক্ষিণ এবং পূর্বের রাজ্যগুলির চাপে সেই ইচ্ছে থেকে পিছিয়ে এসেছে কেন্দ্র। তবে মঙ্গলবার হিন্দি দিবস উপলক্ষে ফের সরকারি ভাষা হিসেবে হিন্দি ভাষা ব্যবহারের পক্ষে জোরালো সওয়াল করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁর দাবি, অন্য কোনও ভাষার সঙ্গে দ্বন্দ্ব নেই হিন্দির। হিন্দি সকল ভাষার সখী। সব ভাষার সমন্বয়েই দেশের অগ্রগতি সম্ভব। অমিত শাহের কথায়, হিন্দি এবং ভারতের অন্যান্য সব ভাষাকেই অগ্রাধিকার দিয়ে তুলে ধরতে হবে।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘আবেগের বহিঃপ্রকাশ করার সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম হল ভাষা। প্রধানমন্ত্রী যদি আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গিয়ে হিন্দিতে কথা বলতে পারেন, তাহলে আমরা কেন হিন্দি বলতে বিব্রত বোধ করব? সেই দিন চলে গিয়েছে যখন মনে করা হত যে হিন্দি বলাটা ব্যক্তিত্বের বিকাশের ক্ষেত্রে সমস্যার। আত্মনির্ভর হওয়ার অর্থ শুধু দেশের মধ্যে উৎপাদন নয়। আমাদের ভাষার ক্ষেত্রেও আত্মনির্ভর হতে হবে। মোদীজির নেতৃত্বে আমরা হিন্দি ও অন্যান্য ভাষার সমান্তরাল উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’