যুক্তরাষ্ট্রের কাবুল ত্যাগের এক সপ্তাহের মাথায় সরকার গঠন করল তালেবান। দুই দফা পিছিয়ে আফগানিস্তানের স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তারা অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠনের ঘোষণা দেয়।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ সাংবাদিকদের জানান, নতুন সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আছেন মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ এবং তাঁর ডেপুটি হিসেবে আছেন মোল্লা আব্দুল গনি বারাদার ও সম্প্রতি দোহায় শান্তি আলোচনায় অংশ নেওয়া আব্দুল সালাম হানাফি। তালেবানের সরকার গঠন নিয়ে আলোচনার শুরুতে সংবাদমাধ্যমগুলোয় বলা হচ্ছিল, মোল্লা বারাদারই প্রধানমন্ত্রী হবেন।

নতুন সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তালেবানের ঘনিষ্ঠ হাক্কানি নেটওয়ার্কের প্রধান সিরাজুদ্দিন হাক্কানির নাম ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসীদের একজন। প্রধানমন্ত্রীর পদ পাওয়া হাসান আখুন্দ জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছেন। তিনি তালেবানের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রথম সর্বোচ্চ নেতা মোল্লা ওমরের ঘনিষ্ঠ ও রাজনৈতিক উপদেষ্টা ছিলেন। তাঁর ডেপুটি আব্দুল সালাম হানাফিও জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার তালিকায় আছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে আছেন আমির খান মুত্তাকি, প্রতিরক্ষামন্ত্রী হয়েছেন মোল্লা ইয়াকুব। অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন মোল্লা হেদায়েত বদরি, বিচার মন্ত্রণালয় পেয়েছেন আব্দুল হাকিম ইসহাকজাই, তথ্যমন্ত্রী খায়রুল্লাহ সাইদ ওয়ালি খায়েরখোয়া। তালেবানের সুপ্রিম কমান্ডার হিবাতুল্লাহ আখুনজাদা দায়িত্ব পাওয়া মন্ত্রীদের প্রতি দেশে ইসলামী শরিয়াহ প্রতিষ্ঠার আহ্বান জানান। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।