বিশ্বের সর্ববৃহৎ সার্চ ইঞ্জিন ও প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগলে চাকরি পেয়েছেন ফেনীর ছাগলনাইয়ার ছেলে সাফায়েত উল্যাহ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এই শিক্ষার্থী গুগলের তাইওয়ান অফিসে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করবেন।

গত ৩ সেপ্টেম্বর চাকরির নিয়োগপত্র দেওয়া হয় তাকে। চলতি বছরের ডিসেম্বরে গুগল পিক্সেল টিমে যোগ দেবেন তিনি।

ছাগলনাইয়া উপজেলার নিজপানুয়া গ্রামের আমান উদ্দিন ভূঁইয়া ম্যানেজার বাড়ির মৃত সলিমুল্লাহর ছেলে সাফায়েত। পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড় তিনি। ২০১২ সালে ছাগলনাইয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ২০১৪ সালে ফেনী সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর ভর্তি হন ঢাবিতে। তিনি ঢাবির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল (সিএসই) বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের (২১তম ব্যাচ) শিক্ষার্থী।

পড়াশোনা শেষ করে বর্তমানে ইনোসিস সল্যুশনস নামে ঢাকার একটি সফটওয়্যার কোম্পানিতে কাজ করছেন তিনি।
সাফায়েত বলেন, স্বপ্নের একটি প্রতিষ্ঠান গুগল। সিএসই পড়া সবারই স্বপ্ন থাকে এমন কোনো সুযোগ পাওয়ার। সেখানে যেতে পারছি এটা অনেক বড় পাওয়া। আমার অনুভূতি আসলে বলে বোঝানো যাবে না। সব মিলিয়ে অনেক ভালো লাগছে।

পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সাফায়েত বলেন, মায়ের প্রতি সবসময় কৃতজ্ঞ। তাকে এই সংবাদ দিতে পেরে সবচেয়ে বেশি খুশি হয়েছি। মা, বড় মামার সহযোগিতা না থাকলে পড়াশোনা করতে পারতাম কি-না সন্দেহ। তাদের প্রতি ও আমার শ্রদ্ধেয় শিক্ষকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আর বন্ধুদের কাছ থেকে মানসিক সহায়তা পেয়েছি সবসময়।

ফেনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল কান্তি পাল বলেন, আমাদের কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী সাফায়েত। সে পৃথিবীর সেরা একটি কোম্পানিতে কাজ করার সুযোগ পেয়েছে। বিষয়টি আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। আশা করি, সে সুনামের সাথে কাজ করে ফেনী কলেজ এবং ফেনীর নাম উজ্জ্বল করবে।

এর আগে চলতি বছরের আগস্টে গুগলে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার পদে চাকরির সুযোগ পেয়েছেন ঢাবির সিএসই বিভাগের একই বর্ষের শিক্ষার্থী সাদমান সাকিব। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদীতে।