সকাল থেকে শুরু করে ঘুমোতে যাওয়ার আগ পর্যন্ত মিমের সঙ্গে থাকত বার্বি। মিম বাসায় না থাকলে তার খাটের নিচে বসেই সময় কাটাত বিড়ালটি।

কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও এই অভিনেত্রী তার প্রিয় পোষা প্রাণীটিকে বাঁচাতে পারলেন না।
বার্বির মৃত্যুর দুই দিন হলেও মিমের চোখে তাকে হারানোর কষ্ট কমছেই না। এখনো ওর কথা মনে পড়লেই কান্নায় ভেঙে পড়ছেন বিদ্যা সিনহা মিম।

চার মাসের বিড়ালটি নিয়ে মিম জানান, তিনি বাসায় না থাকলে বিড়ালটি বেশির ভাগ সময় তার খাটের নিচে থাকত। গত শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) শুটিংয়ের জন্য বাইরে ছিলেন তিনি। খাওয়ানোর জন্য সহকারী খাটের নিচ থেকে বিড়ালটিকে টেনে বের করতে গিয়েই অঘটনটি ঘটে। জোরে টান লেগে আঘাত পায় সে। এরপর চিকিৎসক চেষ্টা করেও বিড়ালটিকে বাঁচাতে পারেনি।

বিড়ালকে হারিয়ে বিষণ্ণ মিম বলেন, ‘বিড়ালটি আমার সন্তানের মতো ছিল। ওর মৃত্যু আমাকে খুব কষ্ট দিয়েছে। সেটা অনেকটা প্রিয়জনের মৃত্যুর মতোই। বার্বি সারা দিন কাঁদিয়েছে আমাকে। এখনো ওর কথা মনে পড়লেই কান্না আসছে।’

বার্বি ছাড়াও মিমের ক্যান্ডি নামে পাঁচ বছর বয়সী আরেকটি বিদেশি জাতের বিড়ালছানা রয়েছে।

বর্তমানে দীপঙ্কর দীপন পরিচালিত ‘অন্তর্জাল’ সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন মিম। সিনেমাটিতে আইটি স্পেশালিস্টের চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।